অধিকাংশ অনলাইন উদ্যোক্তাদের গল্প বাস্তব এই ছোট গল্পের সাথে মিল আছে

মিঃ মামুন সাহেব একজন নতুন অনলাইন উদ্যোক্তা। উনি সম্প্রতি অনলাইন বিজনেসে নেমেছেন, কেননা তার চার পাশের অনেক বন্ধু-বান্ধব এখন অনলাইনে পণ্য সেল করেন আর টাকা ইনকাম করেন। অনলাইন জগতে নতুন হওয়ায়, উনি প্রাথমিক ভাবে নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে নিজের পণ্য সম্পর্কে মানুষকে জানিয়ে সেল করার চেষ্টা করছেন এবং পাশাপাশি বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে সেল পোস্ট দিয়ে উনি পণ্য সেল করতেছেন। 

তো, সব কিছু মিলে যেহেতু অনলাইনে তিনি নতুন এবং টুক টাক সেল আসছে এটা নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট। সবকিছু ভালোই চলছিল, কয়েক মাস যাওয়ার পর উনি হটাত একদিন একটা বিষয় দেখলেন, উনি যে পণ্য ফেসবুক গ্রুপ, ফেসবুক প্রোফাইলে শেয়ার করে সেল করতেছেন, উনার মতই অন্য একজন উদ্যোক্তা ফেসবুক বিজনেস পেজের মাধ্যমে ফেসবুকে বিজ্ঞাপণ দিয়ে প্রোডাক্ট সেল করতেছেন। পেজে ভিজিট করে দেখলেন সেখানে অনেক সুন্দর একটা লোগো, কভার ফটো রয়েছে। শুধু তাই নয়, এই পেজের মালিকের সাথে যোগাযোগ করার নম্বর, ফেসবুক শপ নামের একটা বাটনে ক্লিক করলে একসাথে সব পণ্য, রিভিউ বাটনে ক্লিক করে পূর্বের কাস্টমারদের রিভিউ ইত্যাদি দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

মামুন সাহেব তো, চিন্তায় পড়ে গেলেন এই ফেসবুক পেজটা আবার কিভাবে তৈরি করে। কোম্পানির লোগো, কভার ফটো ডিজাইন, আরো অন্য সব অপশন কিভাবে যুক্ত করা যায়। ও আরেকটা কথা বলতে ভুলে গেছি মামুন সাহেব কিন্তু শুধু মোবাইল দিয়েই সব কাজ করেন, বাসায় কম্পিউটার আছে কিন্তু কম্পিউটার তিনি নিয়মিত ব্যবহার করেন না। ঐ মাঝে মধ্যে অন করে ইউটিউবে নাটক, সিনেমা বা ইসলামিক ভিডিও ইত্যাদি দেখেন। আর বাসায় বাচ্চারা মাঝে মধ্যে গেম খেলে।

একদিন ফেসবুক স্ক্রল করার সময় উনার সামনে ফেসবুক মার্কেটিং নামে একটা অনাইন কোর্সের বিজ্ঞাপণ আসে। উনি কোর্স সম্পর্কে পড়ে তেমন ভালো বুঝতে পারলেন না, ভাবলেন কোর্সে ভর্তি হলে তারপর সব আস্তে আস্তে বুঝতে পারবেন। তো আর কি কোর্সে ইনরোল করে ফেললেন।

এরপর যথারীতি ক্লাস শুরু হল। ক্লাসে অনেক স্টুডেন্ট। সবাই মনযোগ সহকারে ক্লাস শেষ করলেন। টিচার হোমওয়ার্ক দিলেন। এবার মামুন সাহেব মোবাইল দিয়ে হোমওয়ার্ক করতে গিয়ে দেখছেন যে কাজগুলো আসলে মোবাইল দিয়ে ভালোভাবে করা যাচ্ছেনা। 

টিচার সব কাজ দেখিয়েছেন কম্পিউটারে, উনার যেসব অপশন আসে, মোবাইলে সব কিছু আসছে না। তো কি আর করার, মামুন সাহেব ও কম্পিউটারের উপর পড়ে থাকা ধুলা বালি একটু পরিষ্কার করে কম্পিউটার অন করলেন। এবার কম্পিউটার ওপেন করার পর একটা ওয়েব ব্রাউজার ওপেন করে সেখানে ফেসবুকে লগইন করলেন এরপর টিচার এর দেখানো ওয়েতে কাজ করার চেষ্টা করছেন কিন্তু কেমন জানি ঠিকঠাক ভাবে সব কিছু হচ্ছে না। টিচার যেমন দ্রুত এদিক সেদিক ক্লিক করে সব কিছু সহজে দেখিয়ে যাচ্ছে উনার কাছে এটা খুব কঠিন লাগছে। কেননা উনি কম্পিউটারের ব্যাসিক ব্যবহার গুলো ও কোনদিন ঠিকঠাক ভাবে শেখার চেষ্টা করেন নাই। ঐ কম্পিউটার কিনে আনার পর মাঝে মধ্যে ইউটিউবে গিয়ে নাটক, সিনেমা, ইসলামিক ভিডিও ইত্যাদি এগুলো দেখে আবার অফ করে রাখতেন। এখন পড়ে গেলেন চিন্তায় কিভাবে কি করবেন। 

এর পরের ক্লাসে অনেকেই হোমওয়ার্ক জমা দিচ্ছেন কিন্তু উনি তেমন কিছুই দিতে পারছেন না, শুধু উনি না, উনার মত আরো অনেক নতুন উদ্যোক্তা কাজ জমা দিতে পারেন নাই। উনারা সবাই ফেসবুক মার্কেটিং শব্দের প্রেমে পড়ে, ডিস্কাউন্ট অফার দেখেই, বেশি কিছু চিন্তা না করে কোর্সে ভর্তি হয়ে গেছেন। এভাবে কয়েকটা ক্লাস চলার পর দেখা গেল স্টুডেন্ট সংখ্যা ৮০ থেকে ২৫ এ নেমে আসল। অন্যদের সাথে মামুন সাহেব ও হাল ছেড়ে দিলেন। উনার ফেসবুক মার্কেটিং শেখার শখ টা আর পূরণ হলো না।

উপরের গল্প থেকে অনেক কিছু শেখার বিষয় আছে। মামুন সাহেবের মত ভুল আমরা হাজারো উদ্যোক্তা প্রতিনিয়ত করে চলেছি। আমরা সঠিক গাইডলাইন ফলো না করে, সঠিক ব্যক্তির কাছ থেকে পরামর্শ না নিয়ে বিভিন্ন অ্যাডভান্স কোর্সে ভর্তি হয়ে পড়ছি। কেননা বিভিন্ন কোর্সের বিজ্ঞাপনে অনেক টাকা ইনকামের কেস স্ট্যাডি, স্ক্রিনশট ইত্যাদি দেখে আমরা সাত পাচ না ভেবে কোর্সে ভর্তি হয়ে শুধু শুধু টাকা টা জলে ফেলছি এবং হতাশ হয়ে পড়ছি।

আমাদের উচিত একটা সময় নির্ধারণ করে একেবারে শুরু থেকে শেখা শুরু করা। ক্লাস ১ এ না পড়ে এক লাফে ক্লাস ৫ এ পড়তে গেলে তো আমরা কিছুই বুঝব না।

যারা অনলাইন বিজনেসে নতুন বা ননটেক পার্সন তাদের জন্য আমার পরামর্শ থাকবে আগে নিচের বিষয় গুলো ক্লিয়ার হয়ে নেন, এরপর যেকোন কোর্স করতে গেলে ইনশাআল্লাহ্‌ ইজিলি সবকিছু ক্যাচ করতে পারবেন।

বিষয় সমূহঃ 

  • কম্পিউটারের ব্যাসিক ব্যবহার,
  • মার্কেটিং এর ব্যাসিক বিষয়সমূহ জানা,
  • ফেসবুক পার্সোনাল প্রোফাইল অপটিমাইজেশন,
  • ফেসবুক বিজনেস পেজ তৈরি ও অপটিমাইজেশন,
  • বিজনেস গ্রুপ তৈরি ও অপটিমাইজেশন, 
  • ব্যাসিক লোগো, কভার ফটো,সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ডিজাইন ইউজিং ক্যানভা
  • বিজনেসের নামে ইমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি,
  • কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়, চেক করতে হয় ইত্যাদি, 
  • গুগল ড্রাইভে কিভাবে ফাইল শেয়ার করতে হয়,
  • কিভাবে ওয়ার্ড ফাইলে, এক্সেল ফাইলে লিখতে হয়, 
  • ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট তৈরি, 
  • ইউটিউব চ্যনেল তৈরি ও ভিডিও আপলোড,
  • কিভাবে সুন্দরভাবে কন্টেন্ট লিখতে হয় ইত্যাদি বিষয় সমূহ 

এগুলো শেখার পর আপনি ফেসবুক মার্কেটিং শিখতে গেলে খুব সহজে শিখতে পারবেন, ইনশাআল্লাহ্‌।

আর হ্যাঁ, এখন আমাকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন উপরের বিষয় গুলো কোন জায়গা থেকে বা কিভাবে শিখতে পারি। আপনি চাইলে ইউটিউব থেকে দেখে শেখার চেষ্টা করতে পারেন ( এটা টাফ কারণ সাপোর্ট ছাড়া এ কাজগুলো শেখা সহজ না)। অথবা এবিসি আইটি পার্ক এ ব্যাসিক স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর উদ্যোক্তা নামে একটা লাইভ কোর্স করানো হয় সেটা তে ভর্তি হয়ে খুব সহজে শিখতে পারেন। কোর্সের লিংক

শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং

Facebook
WhatsApp
LinkedIn

More Posts

বিজনেসে 🤑 সেল বৃদ্ধি করতে কে না চাই, কিন্তু কিভাবে

মার্কেটে অনেকেই বিজনেস করছে কিন্তু তার মধ্যে কিছু সংখ্যক মানুষ ভালো করতেছে, বাকিদের যাচ্ছে তাই অবস্থা তাই না ?  অন্যের বিজনেসে ভালো সেল আসতেছে কিন্তু

what is landing page - Website VS Landing Page

ল্যান্ডিং পেজ কি ? ওয়েবসাইট এবং ল্যান্ডিং পেজের মধ্যে পার্থক্য

https://youtu.be/rNxALx-ARb4 ল্যান্ডিং পেজ কি? স্বাভাবিক ভাবে ল্যান্ডিং পেজ বলতে ওয়েবসাইটের যে পেজে ভিজিটর ভিজিট করে সে পেজকেই বুঝায়। কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং এ , ল্যান্ডিং পেজ

Send Us A Message